শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়

‘বামুনের মেয়ে’ সন্ধ্যার আসল পরিচয়ে তার পিতামহীর যে জীবনেতিহাস, সেখানে পূর্বপুরুষ-উত্তরাধিকারের মধ্যকার বন্ধন দেখে সাম্প্রতিক পাঠতালিকা থেকে পল্লীকবির ‘বউ টুবানীর ফুল’ এবং পাপড়ি রহমানের ‘বয়ন’... Read More
‘নব ঋত্বিক নবযুগের!নমস্কার! নমস্কার!আলোকে তোমার পেনু আভাসনওরোজের নব ঊষার!তুমি গো বেদনা-সুন্দরেরদরদ্-ই-দিল্, নীল মানিক,তোমার তিক্ত কণ্ঠে গোধ্বনিল সাম বেদনা-ঋক্।’ অমর কথাশিল্পী শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে কাজী নজরুল... Read More
বাংলা সাহিত্যের সবচেয়ে জনপ্রিয় কথাশিল্পী শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের আজ ১৪৫তম জন্মবার্ষিকী। তিনি আজকের দিন ১৮৭৬ সালের ব্রিটিশ ভারতের প্রেসিডেন্সি বিভাগের হুগলি জেলার দেবানন্দপুর গ্রামে এক দরিদ্র ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর অনেক উপন্যাস ভারতবর্ষের প্রধান ভাষাগুলোতে অনূদিত হয়েছে। বড়দিদি (১৯১৩), পল্লীসমাজ (১৯১৬), দেবদাস (১৯১৭), চরিত্রহীন (১৯১৭), শ্রীকান্ত (চারখণ্ডে ১৯১৭-১৯৩৩), দত্তা (১৯১৮), গৃহদাহ (১৯২০), পথের দাবী (১৯২৬), পরিণীতা (১৯১৪), শেষ প্রশ্ন (১৯৩১) ইত্যাদি শরৎচন্দ্র রচিত বিখ্যাত উপন্যাস। বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে অপ্রতিদ্বন্দ্বী জনপ্রিয়তার তিনি 'অপরাজেয় কথাশিল্পী' নামে খ্যাত। তিনি কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯২৩ খ্রিষ্টাব্দে জগত্তারিণী স্বর্ণপদক পান৷ এছাড়াও তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে 'ডিলিট' উপাধি পান ১৯৩৬ খ্রিষ্টাব্দে। ১৯৩৮ সালে ১৬ জানুয়ারি তিনি মৃত্যুবরণ করেন। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম এই তুমুল জনপ্রিয় কথাসাহিত্যিক শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে ‘শরৎচন্দ্র’ শিরোনামে একটি কবিতা রচনা করেন। নন্দিত এই কথাসাহিত্যিকের জন্মদিনে বইচারিতার চিরায়ত বিভাগে সেই কবিতাটি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হলো। ... Read More
(আমরা বেশির ভাগই, কেন জানি না দেবদাসের ব্যর্থ-প্রেমিক-রূপটাই গ্রহণ করি উপন্যাসটা না পড়েই। কে প্রথম এমন সর্বনাশা ধারণাটার বীজ এদেশের মাটিতে বুনল, সে বীরজাদাকে দেখতে... Read More
কেন জানি না পড়তে গিয়ে মনে হয়েছে—’দেবদাস’ যেখানে শেষ, তার পর থেকে ‘পল্লী-সমাজ’ শুরু হয়েছে। রমেশ হয়ে ফিরে এসেছে দেবদাস। পার্বতীর ছাড়াছাড়ি হয়েছিল ভুবন চৌধুরীর... Read More